Get Even More Visitors To Your Blog, Upgrade To A Business Listing >>

ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা:সমর্থনের পক্ষে স্ব স্ব যুক্তি



বিশ্বকাপ ফুটবলের এবারের আসর বসেছে রাশিয়ায়।প্রতি চার বছর পর পর ফুটবলের এই মহাযুদ্ধে ফুটবল পরাশক্তিরা তাদের শক্তিমত্তা প্রদর্শন করে ।তবে প্রতি আসরে কয়েকটি নবীন দলও তাদের জাহির করার চেষ্টা করে।বর্তমানে বিশ্বকাপ ফুটবলের নিয়ম অনুযায়ী সারবিশ্বের ৩২টি দল মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।এইবার ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে ফুটবলের অনেক বনেদি দেশ মূলপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি।যেমন:ইটালি,নেদারল্যান্ড,চিলি,তুরস্ক,যুক্তরাষ্ট্র ,চেক রিপাবলিক ,ইউক্রেন ,ক্যামেরন প্রভৃতি।২০২২ সালের বিশ্বকাপের ভ্যেনু ইতিমধ্যে চুড়ান্ত হয়েছে কাতারে।২০২৬ সালের বিশ্বকাপের আসর বসার কথা যুক্তরাষ্ট্র,কানাডা ওমেক্সিকোতে।২০২৬ সালে বিশ্বকাপের আসরে ৩২টি দলের পরিবর্ত্তে ৪৮টি দল মূলপর্বেখেলার  যোগ্যতা  অর্জন করবে বলে ফিফার বরাতে আমরা জানতে পারলাম।কিন্তু অত্যন্ত দূ:খের বিষয় হলো ৪৮টি দল কেন ১০০টি দলও যদি বিশ্বকাপের জন্য কোয়ালিফাই করে সেখানে আমাদের  বাংলাদেশ চান্স পাওয়ার কথা কেউ স্বপ্নেও ভাবেনা।বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর রাশিয়ায় বসুক কিংবা আমেরিকা বসুক আমাদের দেশের মানুষের ফুটবল প্রেম দেখে মনে হয় আসরটি আমাদের  পাড়ায় বসেছে!যদিও এক সময়ের আমাদের দেশের চিরপ্রতিদন্ধী  মোহামেডান আর আবহনী এর তুমল ফুটবল খেলার আসর আর জমেনা।এক সময়ের সর্ব শ্রেণির মানুষের প্রিয় খেলাটির জনপ্রিয়তার আজ একেবারে শূণ্যের কোটায়। মাশরাফি,তামিম,মুশফিক আর সাকিবদের বন্দনার সময়ে   বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোন খেলোয়াড়ের নাম  হয়ত এখন বেশিরভাগ লোকেই বলতে পারবেনা।  এখন সবাই মেতে থাকে বিদেশী দলের সাফল্য আর ব্যর্থতা নিয়ে। একেক জনের একেক দল পছন্দ।বেশিরভাগ আর্জেন্টিনা আর ব্রাজিল এর সমর্থক।কেউ আবার জার্মানির,পুর্তগালের সমর্থক।বাড়ির ছাদ থেকে শুরু করে রাস্তা-ঘাট সব জায়গায় প্রিয় দলের পতাকা উড়ানোর জন্য এক প্রতিযোগিতায় সবাই ব্যস্ত।কেউ আবার নিজের পুরো বাড়িটাকে সাজিয়েছে পছন্দের দলের পতাকার রঙে।নিজের দলের পক্ষে সাফাই গেয়ে গেয়ে একেবারে ঝগড়ায় লিপ্ত হচ্ছে হরহামেশাই।কেউ বলে লিওনেল মেসি সেরা আর কেউ বলে নেইমার সেরা।যারা ব্রাজিলের সমর্থক তারা বলে আর্জেন্টিনাকে প্রিয় দল হিসেবে সাপোর্ট করার কোন  কারণ নেই।তারা মনে করে ব্রাজিলের কিংবদন্তী ফুটবলাররা ফুটবল নামক একটি খেলাকে একটি নান্দনিক শিল্পে পরিণত করেছে তাই আমরা ব্রাজিলের সমর্থক।ফুটবল একটি সাধারণ খেলা যেটা বিভিন্ন দল তাদের নিজস্ব কৌশলে খেলে।কিন্তু ব্রাজিল সবার থেকে আলাদা।ব্রাজিল পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন।বিশ্বকাপের সব আসরের সর্বোচ্চ  গোলদাতা ব্রাজিলের ফুটবল  ম্যাজিক রোনাল্ডো। ব্রাজিলের আছে সর্বকালের ফুটবল বিস্ময় পেলে,জিকো,সক্রেটিস।আরো আছে রোমারিও,বেবেটো,কারেকা,ডুঙ্গা,রবার্তো কালোর্স  ,রিভাল্ডো,ডেনিলসন,রবিনহো,রোনালদিনহো,কাকা প্রমূখ।যেকোন খেলায় হার-জিত থাকবেই।ব্রাজিল যদি কোন দলের থেকে ৭ গোল নয় ১০ গোলও হজম করে তবুও ব্রাজিল ব্রাজিলই।যারা ফুটবলের মধ্যে নিজস্ব মেধা আর মননে শিল্পকে খুজে পায় তারাই ব্রাজিলের সমর্থক।তবে এই কথা অবশ্যই স্বীকার করতে হবে যে ,ব্রাজিলের খেলায় এখন আর সেই  ঐতিহ্যবাহী নান্দনিকতা আর  শৈল্পিকতা তেমন একটা খুজে পাওয়া যায় না।এটার একটা সম্ভাব্য কারণ হতে পারে ব্রাজিলের বেশিরভাগ খেলোয়াড় সারাবছরই ইউরোপের বিভিন্ন লীগে খেলতে খেলেতে এক ধরনের অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে।আর্জেন্টিানার সমর্থকগোষ্ঠী তৈরী হয় মূলত ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপের আসর থেকে।১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপের আসরে ফুটবল বিশ্ব এক তরুন ফুটবলারের ফুটবলীয় নৈপূন্য মুগ্ধ হয়।আর সেই অসাধারণ প্রতিভা হচ্ছে আর্জেন্টিনার দিয়াগো ম্যারাডোনা।ম্যারাডোনার ভক্তরাই মনেপ্রাণে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করে।এই  ব্যাপারে ব্রাজিল সমর্থকদের পাল্টা যুক্তি হল প্রত্যেক বিশ্বকাপের আসরেই কোন না কোন খেলোয়াড়ই তার ব্যক্তিগত প্রতিভা দিয়ে বিশ্বকে তাক লাগিয়েছে তাই বলে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করতে হবে এই রকম কোন কারণ নেই।ক্রিস্টিয়ানো রোনলোদো,মুহম্মদ সালেহ, মুসা,ব্যাকহাম,মাইকেল ওয়েন তারাও চৌকুষ ও অসম্ভব প্রতিভান খেলোয়াড়।তাই বলে আমরা পুর্তগাল,মিশর,নাইজেরিয়া আর ইংল্যান্ডকে সমর্থন করি না।আমাদের ছোট বেলা থেকেই চলে আসছে এই যুক্তিতক্ক।এখনো চলছে আর ভবিষ্যতে তো আরো গতিময়তা পাবে এই লড়াই।কিন্তু আমরা যারা বিদেশী ফুটবল দলের জন্য অন্ত:প্রাণ তারা কী সবাই এক হয়ে একটি দাবি তুলতে পারিনা বাংলাদেশের তৃণমূলের জনপ্রিয় খেলা ফুটবলকে আবার জাগিয়ে তোলা হোক।তখন হয়ত আমাদের দেশের ফুটবল প্রেমিরা ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা বাদ দিয়ে স্বদেশী কোন খেলোয়াকে নিয়ে আসর মাতিয়ে তুলবে! 



This post first appeared on Private Coaching From Class Two To Class Five Within Minimum Cost By Ershad Sir., please read the originial post: here

Share the post

ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা:সমর্থনের পক্ষে স্ব স্ব যুক্তি

×

Subscribe to Private Coaching From Class Two To Class Five Within Minimum Cost By Ershad Sir.

Get updates delivered right to your inbox!

Thank you for your subscription

×