Get Even More Visitors To Your Blog, Upgrade To A Business Listing >>

যা বললেন চাঁদপুরের বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় ঘোষণা করেছে আদালত।

এ রায়কে ঘিরে রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সাধারণ জনগণের মাঝে ব্যপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আদালত কতৃক ঘোষিক এই রায় নিয়ে তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে চাঁদপুর জেলা বিএনপি বিএনপির নেতৃবৃন্দ। তারা বলছে সরকারকে খুশি করার জন্য এ রায় দেয়া হয়েছে। অপরদিকে আওয়ামীলীগ নেতাদের জানিয়েছেন, এ দেশে এখন আর কেউ আইনের উর্ধে নয়। বর্তমান সরকারের সময়ে দেশে সিত্যিকার অর্থে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আর এ জন্যই এখন আর কেউ অন্যায় করে ছাড় পায় না।

চাঁদপু জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহŸায়ক অ্যাড. সলিম উল্যাহ সেলিম বলেন, আজকে যে রায় হয়েছে এ তা আদালতের নয়, এটি সরকারের সাজানো রায়। দেশের জনগণ এ রায়কে মানে না এবং বিশ্বাস করে না। এ মিথ্যা মামলার রায়ে কারণে বিএনপি এবং বেগম খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তা আগের চেয়ে অনেক বেশী বৃদ্ধি পেয়েছে। তাছাড়া এই রায় আমাদের দলকে ঐক্যবদ্ধ করবে।

রায়কে ঘিরে আগামী দিনের আন্দোলন সংগ্রামের বিষয়ে তিনি বলেন, কেন্দ্র থেকে যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে আমরা গণতান্ত্রিক ও নিয়মতান্ত্রিকভাবে তা পালন করবো। শান্তিপূণ আন্দোলনের মধ্যদিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো।

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং চাঁদপুর জেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান ভুঁইয়া বলেন, এ রায় ছিলো রাজনীতির প্রতিহিংসার রায়। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির নামে যে মিথ্যা মামলায় করা হয়েছে তাতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাঁজা হয় না। আগামী নির্বাচন থেকে বিএনপিকে দূরে রাখতে সরকারকে খুশি করার জন্য এই রায় দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, দেশনেত্রী আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন যে, দেশের জনগণ আমাদের সাথে রয়েছে। তাই জনগণকে সাথে নিয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করার জন্য তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই এদেশের মাটি ও মানুষের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো।

জেলা যুবদলের সভাপতি শাহজালাল মিশন বলেন, এ রায়ে দেশের জনগণ সন্তুষ্ট না। জিয়া পরিবার ও বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য এ রায় দেয়া হয়েছে। মিথ্যা মামলার এ রায়ের ফলে দেশের জনগণ ক্ষুব্ধ এবং আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা শুণ্যের কোঠায় পৌঁছে গেছে। বেগম খালেদা জিয়ার নির্দেশ মতোই আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে দেশে সত্যিকার অর্থে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে লড়াই চালিয়ে যাবো।

জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাফিউস শাহাদাত ওয়াসিম পাটওয়ারী, আওয়ামী লীগ সরকার দেশের হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করছে। আদালত তাদের বিচার না করে একটি মিথ্যা মামলার রায় দিয়েছে। এ রায়ের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের বাকশাল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আন্দোলন করার ক্ষমতা রয়েছে। কিন্তু তিনি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তিনি আমাদের যে নির্দেশ দিয়েছেন, সেই নির্দেশ মতো শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনা হবে।

এ বিষয়ে মতামত নিয়ার জন্য জেলা বিএনপির আহŸায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক ও জেলা ছাত্রদলের আহŸায়ক ফয়সাল গাজী বাহার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাদের পাওয়া যায়নি।

এদিকে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিদুদ্ধে আদালত কতৃক দেয়া দুর্নীর্তির মামলার রায়ের ব্যপারে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল বলেন, এটি সম্পূর্ন আদালতের বিষয় ও আইনী প্রক্রিয়া। এখানে আওয়ামী লীগ বা সরকারের কিছুই না। অন্যায় প্রমানিত হয়েছে বলেই আদালত সাঁজা দিয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ সর্দার বলেন, দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলেই এখন আর কেউ অন্যায় করে ছাড় পায় না। যে অন্যায় করতে তাকে তো শাস্তি পেতে হবেই।

প্রতিবেদক- আশিক বিন রহিম

The post যা বললেন চাঁদপুরের বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ appeared first on Chandpur Times | চাঁদপুর টাইমস.



This post first appeared on ChandpurTimes, please read the originial post: here

Share the post

যা বললেন চাঁদপুরের বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ

×

Subscribe to Chandpurtimes

Get updates delivered right to your inbox!

Thank you for your subscription

×